—ওয়ার্নারদের বিরুদ্ধে মরণকামড় ছাড়া উপায় নেই কে.কে.আরের—

খেলাধুলা

টানা চার হারের পর শুক্রবার গভীর রাতে তিনি ইঙ্গিত দিয়েছেন। নাইটদের ‘ম্যাচ উইনার’ আন্দ্রে রাসেল পরিষ্কার জানিয়েছে দিয়েছেন,‘যেভাবে প্রতিটা ম্যাচ আমি খেলছি সেভাবেই আমি খেলে যাব। আমার লক্ষ্য যেভাবেই হোক দলকে প্লে–অফে পৌঁছে দেওয়া। কারণ প্রতিযোগিতাটা আমরা জিততে চাই…!!

এর পর বাড়তি কিছু বলার থাকতে পারে না। যখন নাইটদের ‘মাসলম্যান’ নিজেই এ কথা বলছেন। সেজন্য, আশা তৈরি হয়। স্বপ্ন দেখা থেমে থাকে না। রোববার (২১ এপ্রিল) হায়দরাবাদের উপ্পলে রাজীব গান্ধী আর্ন্তজাতিক স্টেডিয়ামে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে  কী হবে তা জানার জন্য সন্ধ্য পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে…!!

কিন্তু এটি অনুমান করে নেওয়া যায় নাইটরা ‘বিনা যুদ্ধে’ আত্মসমপ্পণ করবে না। কারণ, ওই যে দলে রয়েছেন হার না মানা, কোনও চোটেই কাবু না হয়ে যাওয়া আন্দ্রে রাসেলের মতো ক্রিকেটার…!!

সেই রাসেল তো জানিয়েছেন, সবাইকে নিয়ে আবার বসবেন। ঘুরে তো দাঁড়াতেই হবে। শুক্রবারর গড়িয়ে নতুন দিন শনিবার। আবার নতুন স্বপ্নে বুঁদ হয়েই কলকাতা থেকে হায়দরাবাদের উড়ান ধরা। শনিবার সন্ধ্যায় হায়দরাবাদে পৌঁছে রোবিবার বিকেলে খেলতে নামার আগে নাইট শিবির যতটা সম্ভব নিজেদের আবার তরতাজা করে নেওয়ার চেষ্টা করল…!!

এমনকি কলকাতা থেকে হায়দরবাদের উড়ানে যাওয়ার সময়েও কোচ জ্যাক কালিস, অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক এবং নয়ারূপে আন্দ্রে রাসেল কথাবার্তা বলেছেন দলের বাকি ক্রিকেটারদের সঙ্গে। কারণ, নাইট শিবির একটা বিশ্বাস নিয়েই হায়দরাবাদ গেছে…!!

গতবার আইপিএলে এই হায়দরাবাদেই জিতেই শেষ পর্যন্ত প্লে–অফে পৌঁছে ছিল তারা। সেজন্য আবার হায়দরাবাদ থেকেই এবারের আইপিএলে ঘুরে দাঁড়ানোর অঙ্গীকার করেছেন দীনেশ কার্তিকরা। রবিবার উপ্পলে জিততে পারলে চাকা বোধহয় ঘোরানো সম্ভব হবে। কারণ, প্লে–অফে পৌঁছতে হলে রাসেলদের এখন বাকি ৫টি ম্যাচের মধ্যে অন্ততঃ ৪টি ম্যাচ জিততেই হবে। নইলে কোনও অঙ্কেই প্লে–অফে শিকে ছিঁড়বে না নাইটদের। তাই ডেভিড ওয়ার্নারদের বিরুদ্ধে মরণকামড় দিতে প্রস্তুত নাইট রাইডার্স…!!

Leave a Reply