মেট্রোরেলের ৪০ শতাংশ অগ্রগতি

বাংলাদেশ

-দৃশ্যমান হচ্ছে স্বপ্নের মেট্রোরেল। অধিকাংশ পিলারের ওপর বসছে স্প্যান। মেট্রোরেলের প্রধান চ্যালেঞ্জ ছিল পাইলিং। সব চ্যালেঞ্জ জয় করে প্রতিনিয়তই এগিয়ে যাচ্ছে মেট্রোরেলের নির্মাণকাজ…!!

উত্তরার দিয়াবাড়ি থেকে মিরপুর, শেওড়াপাড়া এবং আগারগাঁওয়ে পিলারের ওপর দৃশ্যমান হয়েছে স্প্যান। ম্যাসর্ যাপিড ট্রানজিট ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্টের (লাইন-৬) নির্মাণকাজ হচ্ছে দুটি ধাপে। উত্তরা দিয়াবাড়ি থেকে আগারগাঁও রুটে চলতি বছরের এপ্রিল পর্যন্ত ৩৯ দশমিক ৯৩ শতাংশ প্রকল্পের কাজ নির্দিষ্ট সময়েই সম্পন্ন হবে বলে দাবি করছে মেট্রোরেল প্রকল্পের বাস্তবায়নকারী সংস্থা ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড (ডিএমটিসিএল)…!!

প্রকল্পের প্রধান প্রকৌশলী (পূর্ত) আবদুল বাকি মিয়া বলেন, প্রকল্পের কাজ দ্রম্নতগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। শুধু দেশে নয়, জাপানেও মেট্রোরেল প্রকল্পের কিছু অংশের কাজ হচ্ছে, যেমন- কোচ নির্মাণকাজ। মেট্রোরেলে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সব কাজই চ্যালেঞ্জিং। এরপরও প্রধান চ্যালেঞ্জ ইতোমধেই সফলভাবে সম্পন্ন করেছি…!!

তিনি আরও বলেন, মেট্রোরেল প্রকল্প এলাকা দেখলে সবাই বুঝতে পারছেন প্রতিনিয়তই পরিবর্তন হচ্ছে। একের পর এক স্প্যান পিলারে বসছে। বর্তমানে স্টেশন নির্মাণকাজও এগিয়ে যাচ্ছে। আশা করা যাচ্ছে, নির্দিষ্ট সময়েই প্রকল্পটির কাজ সম্পন্ন করতে পারব…!!

ডিএমটিসিএল সূত্র জানায়, বাংলাদেশের প্রথম মেট্রোরেলের নির্মাণকাজ সংশোধিত পরিকল্পনা অনুযায়ী, পুরোদমে এগিয়ে চলেছে। তবে সার্বিক গড় অগ্রগতি ২৪ দশমিক ১৬ শতাংশ…!!

মেট্রোরেলের এই অংশ প্যাকেজ-৩ এবং প্যাকেজ-৪ এর আওতায়। মোট দৈর্ঘ্য ১১ দশমিক ৭৩। এই অংশে মোট ৯টি স্টেশন নির্মাণ করা হবে। উভয় প্যাকেজের কাজ ২০১৭ সালের ১ আগস্ট শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে পরিষেবা স্থানান্তর, চেকবোরিং, টেস্ট পাইল এবং মূল পাইল সম্পন্ন হয়েছে। মোট ৭৬৬টি পাইল ক্যাপের মধ্যে ৬০০টি পাইল ক্যাপ, ৩৯৩টি পিয়ার হেডের মধ্যে ৩০৩টি পিয়ার হেডের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এ ছাড়াও ১০৮টি আই-গার্ডারের মধ্যে ৯৬টি আই-গার্ডার, পাঁচ হাজার ১৪৯টি প্রিকাস্ট সেগম্যান্ট কাস্টিংয়ের মধ্যে দুই হাজার ৫৪৯টি প্রিকাস্ট সেগম্যান্ট কাস্টিং নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে। তিন হাজার ৯৩০ মিটার ভায়াডাক্ট দৃশ্যমান হয়েছে…!!!

চলতি বছরেই খুলে যাবে প্যাকেজ-৩ এবং প্যাকেজ-৪। এর আওতায় উত্তরা নর্থ থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত ১১ দশমিক ৭৩ কিলোমিটার ভায়াডাক্ট ও ৯টি স্টেশন নির্মাণের কাজ চলছে। উভয় প্যাকেজের কাজ ২০১৭ সালের ১ আগস্ট শুরু হয়েছে। সংশোধিত কর্মপরিকল্পনা অনুযায়ী, কাজ পুরোদমে এগিয়ে চলছে। ফলে চলতি বছরেই স্বপ্নের মেট্রোরেলে চড়বে ঢাকাবাসী…!!